Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!.

এসএসসি প্রস্তুতি ২০১৭ পৌরনীতি ও নাগরিকতা (সৃজনশীল প্রশ্ন) | ejobscircular24

Government - Non Government job circular and news of Bangladesh

এসএসসি প্রস্তুতি ২০১৭ পৌরনীতি ও নাগরিকতা (সৃজনশীল প্রশ্ন)

এসএসসি প্রস্তুতি ২০১৭ পৌরনীতি ও নাগরিকতা (সৃজনশীল প্রশ্ন):

এসএসসি প্রস্তুতি ২০১৭ পৌরনীতি ও নাগরিকতা (সৃজনশীল প্রশ্ন):

উদ্দীপকগুলো পড়ে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও : (প্রতিটি প্রশ্নের মান ১০)
১।     আইয়ান দ্বীপের আয়তন ৮০ হাজার বর্গকিলোমিটার।
এখানে প্রায় এক কোটি লোক বাস করে। দ্বীপটি পরিচালনার জন্য একটি সরকার আছে। এ সরকার দ্বীপটির সার্বভৌমত্ব রক্ষায় বদ্ধপরিকর।
     (ক) ‘সিভিটাস’ শব্দের অর্থ কী?
     (খ) সমাজ বলতে কী বোঝো?
     (গ) উদ্দীপকে আইয়ান দ্বীপকে কোন ধরনের সংগঠন বলা যায়? ব্যাখ্যা করো।
     (ঘ) তুমি কী মনে করো উক্ত সংগঠনের জন্য জনসমষ্টি, নির্দিষ্ট ভূখণ্ড, সরকার ও সার্বভৌমত্ব অপরিহার্য? তোমার উত্তরের স্পক্ষে যুক্তি দাও।
২।     বাংলাদেশি রাহাত ডিভি লটারিতে আমেরিকায় গিয়েছে। সে বুদ্ধি, বিবেক ও আত্মসংযমের অধিকারী। সে বাংলাদেশি রিচিকে বিয়ে করে আমেরিকায় নিয়ে যায়। আমেরিকায় তাদের একটি কন্যাসন্তান জন্ম নেয়, যার নাম মুন্নি।
     ক) অধিকার কত প্রকার ও কী কী?                                                                      
     খ) নাগরিক বলতে কী বোঝো?                                                                           
     গ) মুন্নি কোন দেশের নাগরিক? ব্যাখ্যা করো।                                                          
     ঘ) ‘রাহাত একজন সুনাগরিক’—মূল্যায়ন করো।                                                         
৩।     মাজহার চীন থেকে বাংলাদেশে ফিরে এসে তার বন্ধু মুর্শেদের সঙ্গে আলোচনা করছিল। মাজহার বলল, চীনে রাষ্ট্রের শাসন ক্ষমতা জনগণের হাতে ন্যস্ত। এ শাসনব্যবস্থা জনগণের অংশগ্রহণে, জনগণের দ্বারা এবং জনগণের কল্যাণার্থে পরিচালিত হয়। তবে শাসনব্যবস্থাটি ব্যয়বহুল। যেখানে দলীয় স্বার্থের প্রাধান্য দেওয়া হয় এবং নীতির ঘন ঘন পরিবর্তন হয়। মুর্শেদ এসব কথা শুনে বলল, আমাদের দেশের শাসনব্যবস্থার বৈশিষ্ট্যগুলোও এ রকম।
     ক) ক্ষমতা বণ্টনের নীতির ভিত্তিতে রাষ্ট্রকে কয়ভাগে ভাগ করা যায়?                                     
     খ) পুঁজিবাদী রাষ্ট্র বলতে কী বোঝো?                                                                       
     গ) মাজহার কোন ধরনের শাসনব্যবস্থার কথা বলছিল? ব্যাখ্যা করো।                                      
     ঘ) উক্ত শাসনব্যবস্থা কি সম্পূর্ণ ত্রুটিমুক্ত শাসনব্যবস্থা? তোমার উত্তরের সপক্ষে যুক্তি দাও।           
৪।     বিক্রমপুর রাজ্যের রাজা একজন ন্যায়পরায়ণ শাসক। তিনি প্রজাদের অধিকার ও কর্তব্য সম্পর্কে একটি লিখিত আইন প্রণয়ন করেন। এতে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা যেমন প্রতিষ্ঠিত হয়, তেমনি জনগণের সুখ ও সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।
     ক) জাতীয় সংসদে মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত আসন কয়টি?                                                                
     খ) সুপরিবর্তনীয় সংবিধান কী?                                                                                      
     গ) বিক্রমপুর রাজ্যের রাজা যে আইন প্রণয়ন করেন, পৌরনীতির ভাষায় তাকে কী বলা হয়? ব্যাখ্যা করো।
     ঘ) একে কি রাষ্ট্র পরিচালনার মৌলিক দলিল বলা যায়? তোমার মতামত বিশ্লেষণ করো।                          
৫।
    

   ক) বাংলাদেশে মোট কতটি প্রশাসনিক উপজেলা আছে?                                            
     খ) সচিবালয়ের প্রশাসনিক কাঠামো লেখো।                                                            
     গ) উদ্দীপকে ‘ক’ দ্বারা কোন সংগঠনটিকে বোঝানো হয়েছে? ব্যাখ্যা করো।                        
     ঘ) উদ্দীপকের ‘খ’ চিহ্নিত সংগঠনটির প্রশাসনিক প্রধান কে? তাঁর কার্যাবলি মূল্যায়ন করো।      
৬।     নাজমা বেগম একজন গ্রাম্য প্রতিনিধি। তিনি এলাকার উন্নয়নের জন্য মত্স্য চাষ, পশু পালন ও পশুসম্পদের উন্নয়নের জন্য অনেক কাজ করেন। এ ছাড়া তিনি রাস্তাঘাট, সেতু, কালভার্ট নির্মাণ এবং রাস্তার ধারে বৃক্ষরোপণ কার্যক্রম তদারকি করেন। তাঁর সঙ্গে আরো কাজ করেন একজন চেয়ারম্যান ও ১১ জন সদস্য।
     ক) বাংলাদেশে পার্বত্য জেলা কয়টি?                                                                          
     খ) নারীর ক্ষমতায়ন বলতে কী বোঝো?                                                                       
     গ) নাজমা বেগম কোন সংগঠনের প্রতিনিধি? ব্যাখ্যা করো।                                           
     ঘ) নাগরিক বিকাশে উক্ত প্রতিষ্ঠানের অবদান মূল্যায়ন করো।        
৭।     মাসুদ ‘ক’ নামক একটি দেশের প্রবাসী। সে দেশে মৃত্যুহারের চেয়ে জন্মহার বেশি এবং সম্পদের বৃদ্ধিও বেশি নয়। দেশটির মাথাপিছু আয় খুবই কম এবং শিক্ষার হারও কম। ফলে সে দেশের জনসাধারণ নানা রকম দুর্ভোগের স্বীকার হয়।
     ক) জনসংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশের স্থান কততম?                                                     
     খ) কর্মমুখী শিক্ষা কী?                                                                                         
     গ) ‘ক’ দেশটির জনসাধারণের দুর্ভোগের প্রধান কারণ কী? ব্যাখ্যা করো।                                 
     ঘ) উক্ত সমস্যা সমাধানে নাগরিক হিসেবে আমাদের করণীয় কী? মতামত দাও।                                                


No comments:

Post a Comment

Copyright © ejobscircular24