Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!.

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করতে যা যা প্রয়োজন | ejobscircular24

Government - Non Government job circular and news of Bangladesh

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করতে যা যা প্রয়োজন

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করতে যা যা প্রয়োজন

it

আইটি লাইভ: ফ্রিল্যান্সিং জগতে টিকে থাকতে প্রয়োজন সাধনা ও ত্যাগ। এছাড়াও ফ্রিল্যান্সিংয়ের জন্য দু’টি বিষয় অত্যন্ত জরুরি, প্রথমত দক্ষতা এবং দ্বিতীয়ত ধৈর্য। আপনার যদি কাজের ভাল দক্ষতা থাকে, কিন্তু ধৈর্য না থাকে তবে সফল হওয়ার সম্ভাবনা কম। অন্যদিকে আপনার অনেক ধৈর্য আছে কিন্তু কাজের দক্ষতা নেই তাহলেও সফল হওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

যারা ফ্রিল্যান্সিংয়ে আগ্রহী তারা আগে দক্ষতা অর্জন করুন, ধৈর্য ধরুন, নিজের উপর আস্থা রাখুন এবং চেষ্টা করে যান তাহলে সফলতা আপনার হাতে এসে ধরা দেবে।

মনে রাখবেন, প্রথমেই আপনাকে ইংরেজিতে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। ইংরেজিতে দক্ষ না হলে আপনি প্রতিটি ক্ষেত্রেই বাধার সম্মুখীন হবেন। দক্ষতা অর্জনের জন্য আপনাকে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর উপর প্রফেশনাল ট্রেনিং নিতে হবে না। কারণ ইংরেজিতে দক্ষতা বা ইংরেজি বোঝার বা অন্য কাওকে মনের ভাব বোঝাতে সামান্য সর্তক থাকতে হবে।
নিকট থেকে শেখার চেষ্টা করতে হবে। গুগলে সার্চ করে, ইউটিউবে ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে এবং বিভিন্ন ব্লগ থেকেও আপনি অনেক কিছুই শিখতে পারবেন।
আসলে ফ্রিল্যাস্নিংয়ের জন্য যে ভাবে প্রস্তুত করতে হবে নিজেকে-

১. ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে গেলে প্রথমেই অনেক ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হবে। মনে রাখতে হবে বিনিময় ছাড়া টাকা পকেটে আসবেনা তাই, প্রথমত ধৈর্য ধারণ এর সাথে সাথে কি কি কাজ আমাকে দিয়ে করা সম্ভব বা করতে পারব বলে বিশ্বাস, সে কাজ গুলোকে আরও আয়স্ত করা, আর এমন মানসিকতা নিয়েই ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজ শুরু করতে হবে।

২. ফ্রিল্যান্সিং মানে এমন নয় যে খুব সহযেই হাজার হাজার টাকা ইনকাম হয়ে যাবে, বা ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেই রাতারাতি বড়লোক হয়ে যাব। এমন ধারণা পাল্টাতে হবে।

৩. আত্মবিশ্বাসি হয়ে উঠুন আয় করার অনেক পথ আছে। অনলাইনে অনেক ধরনের কাজ আছে, আপনি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে গিয়েই যদি ভাবতে থাকেন এই পথে সফল হওয়া সম্ভব নয়, তাহলে কাজের শুরুতেই আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলবেন।

৪. আপনার কাজ পাওয়ার জন্য যে প্রতিযোগিতা করবেন সে কাজ গুলো যেন গ্রহণযোগ্য হয় মানে অন্যদের থেকে যেন ভাল হয় সে চেষ্টাই করতে হবে।

৫. ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে আপনার টাকা আয় করার চেয়ে অর্জনের গুরুত্ব অনেক বেশি। এটা হাইলাইট করার চেষ্টা করুন। আর সবসময় বায়ারের বাজেটের মধ্যে বিড করুন।

৬. কাজের জন্য বিড করার সময় কভার লেটারটি অবশ্যই আকর্ষণীয় করে লিখবেন।

৭. একটি কভার লেটার বার বার কপি করে সেটা সব জায়গায় পেস্ট করবেন না, তাহলে কাজ পাওয়ার যে সম্ভাবনা থাকবে সেটাও হারাবেন।

৮. সাধারণত কাজ পাওয়ার মূখ্য সময় গভীর রাত অর্থাৎ রাত ১টা থেকে ৪টা। এ সময় কাজ বেশি পোস্ট হয়, তাই এই সময় অ্যাপ্লাই করলে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

৯. ‘পেমেন্ট মেথড ভেরিফাইড’ এমন বায়ার দেখেই কাজের জন্য অ্যাপ্লাই করবেন। এছাড়া অন্য বায়ারদের গ্যারান্টি নেই, আপনাকে দিয়ে কাজ করিয়ে উধাও হয়ে যেতে পারে।

১০. যেকোনো ক্ষেত্রে সফল হওয়ার জন্য পরিশ্রম করতে হয়। তবে আয়ের যে বিষয়গুলো আপনার ভালো লাগে, সে বিষয়গুলো নিয়মিত স্টাডি করুন।

 

ঢাকা, ৩০ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম) //এফঅার

No comments:

Post a Comment

Copyright © ejobscircular24